দুই-তিন করে করে এক-এ নেমে এলেন শাকিব

0
14

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে শাকিব খান মানেই ব্যবসা সফল ছবি। তাই আলোচনা-সমালোচনা দুইয়ের মাঝখানে দাড়িয়ে শাকিবই প্রযোজকদের কাছে নির্ভরতার নাম। টাকা লগ্নি করে ফেরত নিয়ে আসতে চাইলে এই অভিনেতার বিকল্প ঢালিউডে এখন নেই। এই কারণেই মান্না পরবর্তী সময়ে প্রত্যেক ঈদে শাকিবের একাধিক ছবি মুক্তি পেয়েছে। এসেছে সফলতাও।

গত কয়েক বছর ধরে ঢাকাই চলচ্চিত্রের বাইরে কলকাতার ছবিতে অভিনয় করেও প্রশংসা কুড়িয়েছেন তিনি। অনেক চলচ্চিত্র বোদ্ধারা বলেন, কলকাতায় যাওয়ায় অভিনেতা শাকিব খানকে নতুন করে জানতে পেরেছেন দর্শক। বিষয়টি নিয়ে শাকিবও বলেন, কলকাতার দর্শকরা যে আমাকে এতোটা পছন্দ করেন ওখানে কাজ না করলে বুঝতে পারতাম না।

কিন্তু ওখানকার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের সাথে বনিবনা না হওয়ায় এখন শাকিবের হাতে টালিগঞ্জের ছবি নেই। কিন্তু কলকাতা যাওয়ার পর শাকিবের কাজের সম্মানি বেড়ে গেছে অনেক। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের বর্তমান বাজারের প্রেক্ষিতে ওই সম্মানিতে শাকিবকে নিয়ে কাজ করতে সাহস পাননা দেশের অনেক দামি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানও। যার কারণে দিনকে দিন শাকিবের ছবির সংখ্যা কমতে শুরু করেছে।

আগে যেখানে ঈদের বাইরেও এই অভিনেতার ছবি নিয়মিত মুক্তি পেতো, এখন তা আর হচ্ছে না। ঈদ বা বিশেষ দিবস ছাড়া তার ছবি মুক্তি পায় না। বড় বাজেট হওয়ায় অন্য সময়টায় কিং খানের ছবি মুক্তি দিতেও সাহস পাননা প্রজোযকরা। তাই কোনো কোনো ঈদে একসাথে শাকিবের তিনটি ছবিও মুক্তি পেয়েছে। ব্যাবসাও করেছে। কিন্তু দিন পাল্টাচ্ছে দ্রুত। গত রোজার ঈদে তার দুটি ছবি মুক্তি পেয়েছিল। এরমধ্যে একটি ছিলো তার নিজের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের ছবি ‘পাসওয়ার্ড’। দ্বিতীয় ছবিটিও কোনো পরিচিত প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের নয়। ‘নোলক’ নামের ছবিটি ছিলো নায়িকা বুবলীর নিজস্ব প্রযোজনার।

কিন্তু তিন-দুই করে করে এবারের ঈদে শাকিবের ছবির সংখ্যা দাড়িয়েছে একে। অর্থাৎ এই ঈদে তার একটি মাত্র ছবি মুক্তি পাচ্ছে। নাম ‘মনের মতো মানুষ পাইলাম না’। দেশ-বাংলা নামের নতুন একটি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের ছবিটি।

অর্থাৎ এবারও পুরনো কোনো প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের সাথে কাজ করা হয়নি শাকিবের। তার মানে কি সম্মানি বেড়ে যাওয়াটাই কাল হলো শাকিবের জন্য? নাকি বাংলাদেশী চলচ্চিত্রের নাজুক অবস্থা ফুটে ওঠেছে তিন ছবি থেকে এক ছবিতে নেমে আসা নায়কের বর্তমান অবস্থায়।

শাকিব অবশ্য বললেন অন্য কথা, ‘দীর্ঘ দিন একইভাবে থাকা ঠিক নয়, মাঝে মাঝে নিজেকে ভাঙতে হয়। দেখতে হয় নতুন খোলসে মানুষ কিভাবে গ্রহণ করে। এরজন্য কিছুটা সময় প্রযোজন। যেখানে থেকে ইচ্ছে করলেই অনেকগুলো ছবি করা যায় না। তাই হাতে এখন ছবি আগের চেয়ে একটু কম নিচ্ছি। আমি চাই অল্প কাজে মানুষের কাছে বড় ম্যাসেজ দিতে।’

নতুন ছবি সম্পর্কে শাকিব বলেন, ‘মনোর মতো মানুষ পাইলাম না’ ছবিতে নিজেকে অন্যভাবে দেখতে চেয়েছি। এই ছবি দেশ-সমাজ, পারিপার্শ্বিকতা নিয়ে। ছবির ট্রেলার দেখে সবাই প্রশংসা করেছে। আমি ভিন্ন ধারার বাস্তবসম্মত কোনো গল্পে অভিনয় করতে চেয়েছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here